বাড়ি প্রধান খবর সব দল নির্বাচনে অংশ নিয়ে নির্বাচনকে অর্থবহ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

সব দল নির্বাচনে অংশ নিয়ে নির্বাচনকে অর্থবহ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

135

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘বিজয় সমাবেশে’ জনতার উদ্দেশ্যে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া সব দলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবং তিনি বলেছেন, সব দল নির্বাচনে অংশ নিয়ে নির্বাচনকে অর্থবহ করেছে। নির্বাচনে অংশ নেয়া দলগুলোর উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে জয়-পরাজয় থাকবেই  আর এটাই স্বাভাবিক। আমি বলতে চাই আওয়ামী লীগ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছে এটাই সত্য।’ আর তা আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তায় প্রমাণ করে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় লাভ করায় আজ শনিবার বেলা আড়াইটায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘বিজয় সমাবেশে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে ও মহাজোটকে বিজয়ী করেছে। তিনি বলেন, এই বিজয় কেবল আওয়ামী লীগের নয়, এ বিজয় স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির, এ বিজয় সকল জনগণের। বিজয় উৎসবে আসার জন্য তিনি সেখানে উপস্থিত সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং তিনি সকল ভোটার ও তৃণমূলের নেতা-কর্মীদেরও ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, জনগণ আমাদের দায়িত্ব দিয়েছে তাদের সেবা করার, দল মত নির্বিশেষে সবার জন্য আমাদের সরকার কাজ করে যাবে। প্রত্যেকের আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করব আমরা। রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করা হবে। তিনি আরো বলেন, ‘দেশের প্রতিটি নাগরিক আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, বিপুল বিজয়ের পর যখন আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করেছে তখন এই সরকার সবার জন্য কাজ করবে। সেখানে কোনো দল-মত দেখা হবে না। তিনি বলেন, যাঁরা ভোট দিয়েছেন বা যাঁরা ভোট দেননি তাঁদের উদ্দেশে বলতে চাই, আওয়ামী লীগ সবার জন্য কাজ করবে। উন্নয়নে জন্য কাজ করবে, রাজনৈতিক অধিকার নিশ্চিত করবে। তিনি বলেন, সকলের তরে, সকলের জন্য কাজ করে যাব।

তিনি বলেন, নির্বাচনী ইশতেহারের পক্ষে জনগণ রায় দিয়েছে। জনগণ ভোট দিয়েছে, সে ভোটের সম্মান যাতে থাকে অবশ্যই আমরা মাথায় রেখে সার্বিকভাবে সুষম উন্নয়ন করে যাব। এ রায় সন্ত্রাসের, জঙ্গিবাদের, মাদকের বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে রায়। নির্বাচিত প্রতিনিধি যারা তাদের এটা মনে রাখতে হবে। দেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূরণ করা আমাদের কর্তব্য। বিজয় পাওয়া যত কঠিন, তা বিজয় রক্ষা করে জনগণের জন্য কাজ করা আরও কঠিন। সে কঠিন কাজের দায়িত্ব পেয়েছি, তা পালন করতে হবে, সেটাই আমি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী দেশকে সম্পূর্ণ দারিদ্র্যমুক্ত করতে সবার সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, একজন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে এটাই মূল লক্ষ্য যে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের চেতনা নিয়ে দেশ শাসন করে যাব। একটি উন্নত দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে গড়ে তুলব। যেখানে দেশের মানুষের সকলের সহযোগিতা চাই। ছাত্র-শিক্ষকসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে আহ্বান জানাই, ‘আসুন সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাদের বর্তমানকে উৎসর্গ করি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য। যাতে তারা একটি উন্নত ও সুন্দর সমাজ পায়।’

বিজয় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আমীর হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক সহ প্রমুখ ব্যাক্তিবর্গ।