বাড়ি খেলাধুলা অভিষেকেই আলো ছড়াচ্ছেন ১৪৩ কেজি ওজনের ক্রিকেটার

অভিষেকেই আলো ছড়াচ্ছেন ১৪৩ কেজি ওজনের ক্রিকেটার

72

বারমুডার ক্রিকেটার ডেনিয়েল লেভেরকের কথা অনেকের মনে আছে। ২০০৭ বিশ্বকাপে বিশাল দেহের এই ক্রিকেটার স্লিপে ডাইভ দিয়ে যে ক্যাচটি নিয়েছিলেন সে দৃশ্য এখনো অনেকের চোখে ভাসছে। এতদিন ধরা হতো সেই লেভেরকই বিশ্বের সবচাইতে ওজনদার ক্রিকেটার। তবে এবার বোধহয় লেভেরককে টপকে গেছেন একজন। তিনি হলেন রাকিম রশন শেইন কর্নওয়াল।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের ক্রিকেটার তিনি। বিশ্বের মোটা কিংবা ওজনদার ক্রিকেটারের তালিকাটা খুব একটা লম্বা না। বাংলাদেশের আকরাম খান, পাকিস্তানের ইনজামাম উল হক, শ্রীলঙ্কার অজুর্না রানাতুঙ্গা, নিউজিল্যান্ডের ইয়ান স্মিথ এবং বর্তমান সময়ে আফগানিস্তানের মোহাম্মদ শাহজাদ বড়সড় পেট নিয়েও মাঠ মাতিয়ে বেড়াচ্ছেন। তবে এদেও সবাইকে পেছনে ফেলে ক্রিকেট বিশ্বে এখন বোধহয় সবচাইতে মোটা এবং বেশি ওজনের ক্রিকেটার কর্নওয়েল।

শুধু ক্রিকেট নয়, যে কোনো খেলায়ই ফিটনেসটা অনেক বড় ব্যাপার। তবে অনেক সময় প্রতিভাকে কোনো নিয়মের বেড়াজালেই আটকে রাখা যায় না। ক্রিকেটে তাই স্থুলকায় অনেক খেলোয়াড়কেই মাঠ কাঁপাতে দেখা গেছে। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে গত শুক্রবার যার অভিষেক হলো, তিনি বোধ হয় স্থুলতায় ছাড়িয়ে গেলেন সবাইকেই।

অলরাউন্ডার রাহকিম কর্নওয়ালের ওজন যে ১৪৩ কেজি। এই কর্নওয়ালকে অবশ্য ছোটখাটো একজন দৈত্য বললেও ভুল হবে না। ১৪৩ কেজি ওজনের এই ক্রিকেটার লম্বায়ও ৬ ফুট ৪ ইঞ্চি। যে কোনো মানুষের সামনে দাঁড়ালে তাকে আলাদা করা যায় সহজেই। ভারতের বিপক্ষে জ্যামাইকা টেস্টে অভিষেক হয়েছে কর্নওয়ালের। এত বড় শরীর নিয়েও কিন্তু প্রথম দিনই একা ২৭ ওভার বল করেছেন এই অলরাউন্ডার। নিয়েছেন চেতেশ্বর পূজারার গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটিও।

অফস্পিন বোলিংয়ের সঙ্গে ব্যাটিংটাও বেশ ভালো জানেন কর্নওয়াল। হার্ডহিটিং ব্যাটিংয়ের জন্য তার পরিচিতি আছে। ফিল্ডিংয়েও যে তিনি বেশ দক্ষ তার প্রমাণও দিয়েছে শুক্রবার রাতে স্লিপে দাঁড়িয়ে লোকেশ রাহুলের ক্যাচ নিয়ে। বয়স এখনো মাত্র ২৭। কিন্তু শরীরটা একটু বেশি মোটা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের অনূর্ধ্ব-১৯ দল, ‘এ’ দল এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের হয়ে খেলে শেষ পর্যন্ত জায়গা করে নিয়েছেন টেস্ট দলে।

বেশ লম্বা হওয়াতে তার বল করতেও সুবিধা হয়। বেশ উপর থেকে বল ছাড়েন এই কর্নওয়েল। বেশ জোরের উপরও স্পিন করতে পারেন তিনি। যার প্রমাণ দেখিয়েছেন ভারতের বিপক্ষে জ্যামাইকা টেস্টেও প্রথম দিনে। তার ফিটনেসটাও যে বেশ ভাল সেটাও প্রমাণ করেছেন তিনি। ব্যাটে-বলে সমান দক্ষতা দেখিয়ে কর্নওয়েল জায়গা করে নিয়েছেন টেস্ট দলে। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৫৫ ম্যাচে রান করেছেন ২২২৪। একটি সেঞ্চুরিও রয়েছে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ৩৪০ রান করলেও সেখানে ছক্কা মেরেছেন ২৪টি। বল হাতে দারুণ দক্ষতা দেখিয়েছেন কর্নওয়েল। প্রথম শ্রেণির ৫৫ ম্যাচে উইকেট নিয়েছেন ২৬০টি। যেখানে ১০৮ রানে ৮ উইকেট তার সেরা। ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়েছেন ১৭ বার।