বাড়ি ছবিঘর রাজশাহীতে নৌকাডুবিতে ৪ জনের মৃত্যু, এখনো নিখোঁজ ৫!

রাজশাহীতে নৌকাডুবিতে ৪ জনের মৃত্যু, এখনো নিখোঁজ ৫!

221

পদ্মা নদীতে বরযাত্রী নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় আরও একজন সহ মোট ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সর্বশেষ উদ্ধার হওয়া যুবকের নাম রতন আলী (২২)। তিনি মহানগরের রাজপাড়া থানার বসুয়া এলাকার গাজী শেখের ছেলে। আউ শনিবার বিকেল ৩টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে আজ শনিবার (৭ মার্চ) দুপুর সোয়া ১টার দিকে মহানগরের শ্রীরামপুর ঘাট সংলগ্ন পদ্মা নদী থেকে এখলাস হোসেন (২২) নামে আরও একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আজ উদ্ধারকৃত মৃত রতন আলীর ছয় বছরের মেয়ে মরিয়ম খাতুনকে গত শুক্রবার (৬ মার্চ) রাতে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে ডুবুরীরা।

এখন পর্যন্ত এক শিশু, এক মহিলা ও দুই জন পুরুষের লাশ উদ্ধার হলেও এখনও নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় পাঁচজন।

নিখোঁজদের খুঁজতে রাজশাহীর পদ্মা নদীতে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে চারটি উদ্ধারকারী ইউনিট। এরমধ্যে রাজশাহী সদর ফয়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের রংপুর থেকে আসা একটি, বিআইডব্লিউটির একটি এবং বিজিবির একটি ইউনিট নদীতে কাজ করছে।

এর আগে শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘটনার পর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত নিখোঁজদের উদ্ধারে অভিযান চলে। পরে মধ্যরাতে উদ্ধার অভিযান সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। যা আজ (৭মার্চ) শনিবার সকাল থেকে চারটি ইউনিট হয়ে এক যোগে আবারো উদ্ধার অভিযানে নেমেছে।

এ বিষয়ে বিজিবি-১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিয়া উদ্দিন মাহমুদ জানান, শুক্রবার রাত থেকেই বিজিবি সদস্যরা নিখোঁজদের উদ্ধারে ঘটনাস্থল থেকে শুরু করে রাজশাহী চারঘাট সীমান্ত পর্যন্ত স্পিডবোট নিয়ে টহল পরিচালনা করছে। 

এদিকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানের বরাত দিয়ে রাজশাহীর পবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহাদাত হোসেন জানান, শুক্রবার রাতে এ ঘটনায় প্রায় ২৪ জন নিখোঁজ ছিল। তবে রাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত বিভিন্নভাবে বেঁচে ফিরেছেন আরও ১৭ জন। এখন সর্বশেষ প্রায় ছয় জন নিখোঁজ রয়েছেন।

এছাড়াও উদ্ধারকৃত আহতদের মধ্যে নৌকার মাঝি খাদিমুল ইসলাম (২৩), নিহত রতন আলীর স্ত্রী বৃষ্টি খাতুন (২২), সুমন আলী (২৮) ও তার স্ত্রী নাসরিন বেগম (২২) এবং মেয়ে সুমনা আক্তারকে (৬) রামেক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয় ।

তবে নিখোঁজ বাকিদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।