মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন
                                           

আনন্দ-উচ্ছ্বাসে জামালপুরে কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শুরু

বৃষ্টি উপেক্ষা করে জামালপুর শহরের লুইস ভিলেজ রিসোর্ট অ্যান্ড পার্কে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেছে জেলার বিভিন্ন প্রান্তের কৃতী শিক্ষার্থীরা। সেখানে চলছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে উৎসবমুখর পরিবেশে শুরু হয় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। শিক্ষার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘শিখো’র পৃষ্ঠপোষকতায় দিনব্যাপী এই উৎসবের আয়োজন করেছে প্রথম আলো।

সকাল থেকেই শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানস্থলে এসে নির্দিষ্ট বুথের সামনে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে ক্রেস্ট ও উপহারসামগ্রী সংগ্রহ করে। এ সময় সবার মুখে ছিল হাসির ঝিলিক। দীর্ঘ বিরতির পর স্কুলের বন্ধুদের সঙ্গে দেখা হওয়ায় শিক্ষার্থীরা একে অপরকে জড়িয়ে ধরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে। কেউ মুহূর্তটি ধরে রাখে সেলফিতে। পরে শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠান মঞ্চে এসে বসে। এরপর জামালপুর বন্ধুসভার সদস্যদের অংশগ্রহণে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। জামালপুর বন্ধুসভার অন্তরা চৌধুরী ও তৌহিদুল যুবরাজের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন প্রথম আলোর জামালপুর প্রতিনিধি আব্দুল আজিজ।

সারা দেশের ৬৪টি জেলায় পর্যায়ক্রমে জিপিএ-৫ উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের উৎসবটি পাওয়ার্ড বাই ‘বিকাশ’। সহযোগিতা করছে কনকর্ড গ্রুপ, ফ্রেশ, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, ইউসিএনআই ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ শাখা ক্যাম্পাস, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, এটিএন বাংলা ও প্রথম আলো বন্ধুসভা। জামালপুরে উৎসবে অংশ নিতে অনলাইনে নিবন্ধন করে ১ হাজার ৫৯৭ জন শিক্ষার্থী।

জামালপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া উম্মে হাসিবা আলম এসেছিল সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে। সে বলল, ‘আমার বড় বোন ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেন। প্রথমে আপুর মাধ্যমে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের কথা জানতে পারি। সঙ্গে সঙ্গে অনলাইনে নিবন্ধন করেছিলাম। পরে অন্য বান্ধবীদের সঙ্গে কথা হয়। তারাও নিবন্ধন করেছে। পরে সবাই মিলে অনুষ্ঠানে এসেছি। খুবই ভালো লাগছে। সবাই অনেক মজা করছি।’

অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য দেওয়ার জন্য উপস্থিত হয়েছেন সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অধ্যক্ষ মো. হারুন অর রশিদ, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অধ্যাপক মো. আবদুল হাই আলহাদী, সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. রাশেদুল ইসলাম, মির্জা আজম কলেজের প্রভাষক মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মানবাধিকারকর্মী জাহাঙ্গীর সেলিম, জামালপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিশাম আল মহান্নাভ, স্টেট ইউনিভার্সিটির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ সালমুন ইকরাম।

দিনব্যাপী সংবর্ধনায় শিক্ষার্থীদের জন্য থাকছে ক্রেস্ট, অনলাইনে সার্টিফিকেট, প্রথম আলো ই-পেপার (১ মাস) ও চরকির (১৫ দিন) ফ্রি সাবস্ক্রিপশন, শিখোর সৌজন্যে বিনা মূল্যে কোর্স, ফ্রেশ ব্র্যান্ডের স্ন্যাকস। আয়োজনের ফাঁকে ফাঁকে রয়েছে কৃতী শিক্ষার্থী ও জামালপুর বন্ধুসভার সদস্যদের অংশগ্রহণে গান, নাচ, কবিতা ও নাটক। এ ছাড়া বন্ধুসভার সদস্য ও স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে থাকবে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।



ফেইসবুক পেইজ