মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন
                                           

কোহলির সঙ্গে ঝামেলা কীভাবে মিটমাট করলেন নাভিন

বেচারা নাভিন-উল-হক!

ভারতের বিপক্ষে গতকাল আফগানিস্তানের ম্যাচটা হতে হলো বিরাট কোহলির ঘরের মাঠ দিল্লিতে। পুরো ম্যাচেই যখনই নাভিনের দিকে ক্যামেরা ধরা হয়েছে, ততবারই অরুণ জেটলির স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে শোনা গেছে কোহলি-কোহলি!

হয়তো এসব সইতে না পেরেই কিংবা সব মিটমাট করতে কোহলি ব্যাটিংয়ে আসার পর তাঁর সঙ্গে গিয়ে হাত মেলান আফগানিস্তান পেসার। কোহলিও বড় ভাইয়ের মতো গ্যালারির দর্শকদের ইশারায় যেন বুঝিয়েছেন, দয়া করে এবার নাভিনকে একটু রেহাই দিন! কোহলি অবশ্য এমনটা প্রথমবার করেননি; এর আগে ২০১৯ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথকে দর্শকেরা দুয়ো দিলে সেটাও বন্ধের আহ্বান জানিয়েছিলেন এই তারকা ব্যাটসম্যান।
গতকাল দিল্লিতে আফগানিস্তানকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। ভারতকে ২৭৩ রানের লক্ষ্য দেওয়ার পথে দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিজে আসেন নাভিন। তখনই পুরো গ্যালারি কোহলি-কোহলি স্লোগানে ফেটে পড়ে। এরপর কোহলি ব্যাটিং করতে ক্রিজে আসার পরই নাভিনকে বল তুলে দেন আফগান অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শহীদি। তখন আবার নাভিনের উদ্দেশে স্লোগান শুরু হয় গ্যালারিতে। তবে একপেশে লড়াইয়ের দিনে এই দুই ক্রিকেটারই বিষয়টি বাড়তে দেননি। মাঠেই এক অপরের সঙ্গে কথা বলে, পিঠ চাপড়ে মিটমাট করে নেন।
ওয়ানডেতে এবারই প্রথম একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিলেন কোহলি ও নাভিন। আর এটাই হতে যাচ্ছে শেষ। কারণ, ২৪ বছর বয়সী নাভিনকে বিশ্বকাপ শেষে ওয়ানডে ক্রিকেটে আর দেখা যাবে না। অবসরের সিদ্ধান্ত আগেই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। ওয়ানডেতে মাঠে শেষ লড়াইয়ের দিনে কোহলি অপরাজিত ছিলেন ৫৫ রানে, আর নাভিন ৫ ওভার বল করে উইকেট পাননি। দিয়েছেন ৩১ রান।
ম্যাচ শেষে কোহলিকে নিয়ে কথাও বলেছেন নাভিন। ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে নাভিন বলেছেন, ‘দর্শকেরা সাধারণত ঘরের ছেলেদের নামেই স্লোগান দেয়, এ কারণেই আজ এমনটা হয়েছে। এটা কোহলির ঘরের মাঠ। সে দারুণ একজন মানুষ, ভালো ক্রিকেটার, আমরা হাতও মিলিয়েছি। যা ঘটেছিল, সেটা শুধু মাঠেই ছিল। মানুষ এটাকে বড় বানিয়েছে। অনুসারী বাড়ানোর জন্য তাদের এটা করতে হয়।’
কোহলির সঙ্গে কী কথা হয়েছে, সেটাও জানিয়েছেন নাভিন, ‘সে বলেছে, আমাদের ঝামেলা এখানেই শেষ, আমিও বলেছি হ্যাঁ, এখানেই শেষ। এরপর হাত মিলিয়েছি, জড়িয়ে ধরেছি।’

কোহলি ও নাভিনের মধ্যে ঝামেলা বেধেছিল আইপিএলে। চলতি বছরে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু-লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস ম্যাচে তর্ক বেধে গিয়েছিল কোহলি-নাভিনের, যে ঘটনার জেরে একানা স্টেডিয়ামের ম্যাচটিতে কোহলির সঙ্গে ঝামেলা বেধেছিল লক্ষ্ণৌর পরামর্শক গৌতম গম্ভীরেরও। ম্যাচ শেষে কোহলি ও গম্ভীরকে ম্যাচ ফির শতভাগ আর নাভিনকে ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছিল। এ নিয়ে ভারতের ক্রিকেট অঙ্গন বেশ কয়েক দিন উত্তপ্ত ছিল।



ফেইসবুক পেইজ