বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০২:১৩ অপরাহ্ন
                                           

রাতে ফেসবুকে পোস্ট, সকালে লাশ উদ্ধার

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার সকাল আটটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনের একটি মেস থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। বুধবার গভীর রাতে তিনি ফেসবুকে কয়েকটি পোস্ট দিয়েছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ধারণা, গলায় ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

উদ্ধার লাশটি আরিফ মিয়া নামের শিক্ষার্থীর। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। তাঁর গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, আজ ভোর চারটার দিকে আরিফ মিয়া মেসের কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। পুলিশ এসে তাঁর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে। তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে তাঁর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

কামরুজ্জামান চৌধুরী আরও বলেন, আরিফের আত্মহত্যার ঘটনায় সুনির্দিষ্ট কারণ জানা যায়নি। তবে তিনি মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন বলে জানা গেছে। এ জন্য আরিফ মানসিক চিকিৎসার অংশ হিসেবে কাউন্সেলিংয়ের মধ্যেও ছিলেন। তাঁর পরিবারের সদস্যদের খবর দেওয়া হয়েছে, তাঁরা এলে লাশ হস্তান্তর করা হবে।
এদিকে আরিফের ফেসবুক ঘেঁটে দেখা যায়, রাত দুইটার আগপর্যন্ত আরিফ ফেসবুকে কয়েকটি পোস্ট দেন। সেগুলোতে বিষণ্নতা ও কাউকে না পাওয়ার আকুলতা প্রকাশ পেয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো. আজবাহার আলী শেখ বলেন, ওই ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। এ ঘটনায় একটা অপমৃত্যুর মামলা হবে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্র মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন। এ জন্য তিনি চিকিৎসাও নিয়েছিলেন।



ফেইসবুক পেইজ