বাড়ি আন্তর্জাতিক বোনাস হিসেবে গাড়ি পাচ্ছেন ৬০০ কর্মী

বোনাস হিসেবে গাড়ি পাচ্ছেন ৬০০ কর্মী

310
সংগৃহীত

এই মন্দার বাজারে সুরাটে বিশ্বের বৃহত্তম হিরা কাটা ও পালিশ করার কেন্দ্রের ব্যবসা সংকটে থাকলেও দীপাবলি বোনাঞ্জা দেয়া থেকে পিছু হঠছেন না শ্রীহরি কৃষ্ণ এক্সপোর্টসের চেয়ারম্যান ডায়মন্ড ব্যারন সাবজী ঢোলাকিয়া।

৬০০ যোগ্য কর্মীকে দীপাবলি উপলক্ষে গাড়ি উপহার দিচ্ছেন কোম্পানিটির বস। এই প্রথমবার ঢোলাকিয়ার দেয়া উপহার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হাত থেকে গ্রহণ করতে বৃহস্পতিবার দিল্লি গিয়েছেন এক মহিলাকর্মীসহ চার কর্মী।

তাদের হাতে নতুন গাড়ির চাবি তুলে দেবেন মোদি। এরপর কোম্পানির সদর দপ্তর ভারাছায় শ্রীহরি কৃষ্ণ এক্সপোর্টের কর্মীদের উদ্দেশ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি বক্তব্য রাখবেন।

দীপাবলির উপহার সম্পর্কে বলতে গিয়ে ঢোলাকিয়া জানিয়েছেন, লয়ালটি প্রোগ্রামে উত্তীর্ণ হয়েছেন ১,৫০০ কর্মী। তাদের মধ্যে থেকে ৬০০ জনকে গাড়ি দেয়া হবে। বাকি ৯০০ জনকে দেয়া হবে ফিক্সড ডিপোজিট সার্টিফিকেট। এই প্রথমবার প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে উপহার পাবেন কর্মীরা।

চলতি বছর কর্মীদের মোট ৫০ কোটি টাকা ইনসেনটিভ দেয়া হয়েছে বলেও জানান ঢোলাকিয়া। ২০১১ সাল থেকে এ লয়ালটি প্রোগ্রাম চালু করেছে সুরাটের এই কোম্পানি।

২০১৪ সালে তারা দীপাবলি বোনাস হিসেবে কর্মীদের ৫০০টি ফ্ল্যাট ও ৫২৫টি হিরার গয়না উপহার দিয়েছিল।

এ বছরের অাগস্টে তার সংস্থার ২৫ বছর পূর্ণ হয়। আর সেই উপলক্ষ্যে ভরসাযোগ্য তিনজন কর্মীকে তিনি তিন কোটি টাকা দামের মার্সিডিজ-বেনজ গাড়ি উপহার দেন। হরে কৃষ্ণ এক্সপোর্ট প্রাইভটে লিমিটেড নামের কোম্পানি ১৯৯২ সাল থেকে চলছে। মোটা বোনাসের পাশাপাশি কর্মচারীরা ছুটিও পান লম্বা।

সবদিক থেকেই তিনি ব্যতিক্রমী। টাকার গুরুত্ব বোঝানোর জন্য এই হীরা ব্যবসায়ী তার ছেলেকে মাত্র সাত হাজার টাকা, আর তিনটি জামা-কাপড় দিয়ে কোচিতে পাঠিয়ে দিয়েছেন। তিনি মনে করেন, টাকার গুরুত্ব না বুঝলে কখনই টাকা, ব্যবসা, মানুষকে সম্মান করা যায় না। তাই ছেলেকে জীবনকে চিনতে কঠিন পরিস্থিতিতে ঠেলে দিয়েছেন।

নিজের কাকার কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে হীরার দোকানে সাপ্লাই দিয়ে ব্যবসা শুরু করেছিলেন। আজ সাফল্যের শিখরে। তবে তার সাফল্য বাকি ব্যবসায়ীদের থেকে একেবারে আলাদা।