বাড়ি খেলাধুলা চট্টগ্রামে উইন্ডিজকে ৬৪ রানে হারালো বাংলাদেশ

চট্টগ্রামে উইন্ডিজকে ৬৪ রানে হারালো বাংলাদেশ

95

চট্টগ্রামে ১ম টেস্টের তৃতীয় দিনে বাংলাদেশের দেয়া ২০৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৩৯ রান করে ওয়েস্ট উইন্ডিজ। ঘূর্ণি উইকেটে স্পিনারদের সৌজন্যে ৬৪ রানের এই জয়ে স্বাগতিকরা ২ ম্যাচ সিরিজে সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের ঘূর্ণি উইকেটে প্রথম থেকেই ভয়ংকর হয়ে উঠে বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। পরপর দুই ওভারে তুলে নেন দুই উইকেটে। সূচনালগ্নেই কাইরন পাওয়েলকে ফিরিয়ে দেন সাকিব। এ নিয়ে প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে ক্রিকেটের অভিজাত সংষ্করণে ২০০ উইকেট নেয়ার কীর্তি গড়েন তিনি। পরে টিকতে দেননি শাই হোপকেও। একইভাবে এ টপঅর্ডারকে ফিরিয়ে দেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সেই চাপের মধ্যে জোড়া আঘাত হানেন তাইজুল ইসলাম। একই ওভারে ক্রেগ ব্র্যাথওয়েট ও রোস্টন চেজকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ফেরান তিনি। এতে মহাবিপর্যয়ে পড়েন অতিথিরা।

এ পরিস্থিতিতে দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন শিমরন হেটমায়ার। প্রথম ইনিংসের মতো এ ইনিংসেও বিধ্বংসী হয়ে উঠছিলেন। তবে তাকে বেশিদূর এগোতে দেননি মেহেদী হাসান মিরাজ। নাঈম হাসানের ক্যাচে পরিণত করে এ মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যানকে বিদায় করেন তিনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানদের একটু হলেও প্রতিরোধ ছিল সেই পর্যন্ত। পরক্ষণেই দুর্দান্ত ফ্লাইট ডেলিভেরিতে শান ডাওরিচকে এলবিডব্লিউ করে তাদের মহাবিপর্যয়ে ফেলেন তাইজুল। এর মধ্যে দেবেন্দ্র বিশুকে সরাসরি বোল্ড করে প্যাভিলিয়নে পাঠান তিনি। এতে জয়ের পথে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। এখানেই ক্ষ্যান্ত হননি তাইজুল। খানিক বাদে কেমার রোচকে ফিরিয়ে ৫ উইকেট পূরণ করেন তিনি।

এর আগে ১৩৩ রানের লিড নিয়ে ব্যাট করতে নেমে বেশদূর এগোতে পারেননি মুশফিক। তাকে ১৯ রানে ফিরিয়েছেন গ্যাব্রিয়েল। তারপর তিন আঘাত দেবেন্দ্র বিশুর। ক্যারিবিয়ান এই স্পিনার প্রথমে ১৮ রানে ফেরান মিরাজকে। তারপর ৫ রান করা অভিষিক্ত নাঈম হাসান হন তার শিকার।

নাঈম ফিরতে না ফিরতেই একইভাবে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ৩১ রানে ফেরেন মাহামুদউল্লাহ। রোস্টোন চেসের বলে ক্যাচ তুলে ব্যক্তিগত ১ রানে আউট হন তাইজুল।   দ্বিতীয় ইনিংসে টাইগাররা গুটিয়ে গেছে ১২৫ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ  

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ৩২৪

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ২৪৬

বাংলাদেশ ২য় ইনিংস: ১২৫

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২য় ইনিংস; ১৩৯