বাড়ি নির্বাচন পুনঃনির্বাচনের কোন সুযোগ নেই – সিইসি

পুনঃনির্বাচনের কোন সুযোগ নেই – সিইসি

143

ভোট সুষ্ঠ হয়নি অভিযোগ তুলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নতুন করে নির্বাচনের যে দাবি জানিয়েছে তা অযৌক্তিক ও এর কোন সুযোগ নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। সোমবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

এসময় এক সাংবাদিক বলেন, দেশে বড় দুই দলের সমর্থক সংখ্যা প্রায় কাছাকাছি, কিন্তু নির্বাচনের ফলে দেখা গেছে দুই দলের ভোটের ব্যবধান অনেক বেশি। বিষয়টি নির্বাচন কমিশন কিভাবে দেখছে? জবাবে সিইসি বলেন, ‘বিষয়টা আমাদের কাছে কিছু না। জনগণ যেভাবে ভোট দিয়েছে তেমন রেজাল্ট এসেছে।’

নির্বাচনের আগের রাতে দেশের অনেক জায়গায় ব্যালট পেপারে সিল দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগের প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা। এই ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

ভোটগ্রহণ বিরতিহীনভাবে চলার কথা থাকলেও ঢাকার অনেক কেন্দ্রে দুপুর দুইটার পর দুপুরের খাবারের বিরতি দেওয়া হয়েছে। সেই সময় কেন্দ্রের দরজা আটকে রাখার হয়েছে বলে অভিযোগ করেন এক সাংবাদিক। জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনা বলেন, ‘এটা দেখতে হবে। এরকম তো করার কথা না। নিয়ম হলো বিরতিহীন ভাবে ভোট চলবে।’

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রচুর অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে উল্লেখ জানতে চাওয়া হয় যে, এর কারণে গেজেট প্রকাশ পেছাবে কি না?

সিইসি জানান, নির্বাচনে অনিয়ম নিয়ে তাদেরকাছে এখনও কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। তবে অভিযোগ দিলেও গেজেট প্রকাশে বিলম্ব হবে না। যথারীতিই গেজেট প্রকাশিত হবে। তবে সেক্ষেত্রে চার থেকে পাঁচদিন সময় লাগতে পারে।

নির্বাচন কমিশনের কাছে এই নির্বাচন গ্রহণযোগ্য কি না জানতে চাইলে সিইসি বলেন, ‘নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা অবশ্যই আছে। আপনাদের (গণমাধ্যম) মাধ্যমে আমরা সারাদিন দেখেছি, কোথাও কোনো অনিয়মের কথা দেখিনি।’

একটি আন্তর্জাতিক ও একটি দেশি গণমাধ্যমের প্রতিবেদনের প্রসঙ্গে টেনে সাংবাদিকরা জানতে চান সেখানে নির্বাচনের আগেই ব্যালট বাক্স ভর্তি হওয়ার কথা জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে কে এম নুরুল হুদা বলেন, ‘এটা আমাদের দেখতে হবে। যদি দু একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা হয়ে থাকে সেটা আমরা তদন্ত করে দেখবো।’

এই নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশন সন্তুষ্ট কি না এই প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আমি সস্তুষ্ট, কমিশনে অন্য কেউ আমাকে বলে নাই যে তারা অসন্তুষ্ট।’