বাড়ি চিটাগাং পশ্চিম বাকলিয়ায় ভোট গ্রহণ শুরু

পশ্চিম বাকলিয়ায় ভোট গ্রহণ শুরু

60

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের চেয়ে তিনগুণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়ন করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।সম্পূর্ণ ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই উপনির্বাচন।

১৭টি ভোটকেন্দ্রে এবার ওয়ার্ডে ৪৯ হাজার ৭৮২ জন ভোটার ভোট দেবেন।

আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ভোটাররা যাতে সহজে ভোট দিতে পারেন, সে ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সব কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ (ঝুঁকিপূর্ন) ঘোষণা করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রে দু’জন করে পুলিশ সদস্য ও ১২ জন করে আনসার সদস্য দায়িত্বে অাছেন।

‘পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, র‌্যাব-পুলিশের একাধিক টিম নির্বাচনী এলাকায় টহলে অাছে। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলো প্রশাসনের নজরদারিতে রয়েছে।’

এর আগে ২৫ জুলাই ভোটগ্রহণের তারিখ ঘোষণা করে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়।

এর আগে ১৭ এপ্রিল নগরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডের কাউন্সিলর একেএম জাফরুল ইসলাম মারা যান। ১২ জুন পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

সিটি করপোরেশন আইন ২০০৯-এর ১৬ ধারা অনুযায়ী, মেয়াদ শেষ হওয়ার ১৮০ দিন পূর্বে মেয়র বা কাউন্সিলর পদ শূন্য হলে ৯০ দিনের মধ্যে পূরণ করতে হবে। উপ-নির্বাচনে যিনি নির্বাচিত হবেন, তিনি অবশিষ্ট মেয়াদের জন্য ওই পদে বহাল থাকবেন।

যেসব প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, উপ-নির্বাচনে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- মো. মাসুদ করিম টিটু (রেডিও), একেএম আরিফুল ইসলাম ডিউক (মিষ্টি কুমড়া), মোহাম্মদ শহিদুল আলম (ঘুড়ি), মো. শফি (লাটিম), শাহেদুল ইসলাম (টিফিন ক্যারিয়ার) ও শেখ নায়েম উদ্দীন (ঠেলাগাড়ি)।